Take a fresh look at your lifestyle.

কাঠের চিরুণির উপকারিতা

২১৬

চুল সৌন্দর্যের অন্যতম প্রতীক। চুলের যত্নে অনেকেই সচেতন। চুল ভালো রাখতে শ্যাম্পু, কন্ডিশনার, নানা ধরনের তেল ব্যবহার করেন অনেকে। শুধু তাই নয়, সেই প্রাচীন কাল থেকে চুলের যত্নে ভেষজ উপাদান ব্যবহারের কথা জানা যায়। তারপরও চুল নিয়ে যেমন দুশ্চিন্তা আছে, তেমনি এই দুশ্চিন্তা দূর করতে  চলছে নানান গবেষণা।

 

কখনো কি ভেবেছেন চিরুণির কথা? প্লাস্টিকের বা চাচের চিরুণি অনেকে ব্যবহার করেন। অনেকে আবার বেছে নেন কাঠের চিরুণি। এখন প্রশ্ন হলো কোন ধরনের চিরুণি চুলের যত্নে বেশি উপযোগী?

প্লাস্টিকের বা চাচের চিরুণির চেয়ে কাঠের চিরুণি ব্যবহারে চুল ভালো থাকে বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। আসুন জেনে নেই কাঠের চিরুণি ব্যবহারের উপকারিতা।

 

কাঠের চিরুণি মাথায় নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। এই চিরুণি ব্যবহারের ফলে মাথায় রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। চুলের ফলিকলে পর্যাপ্ত অক্সিজেন পৌঁছায়। মাথার ত্বক থেকে যে সেরোম বের হয়, কাঠের চিরুণি সেরোম মাথার সর্বত্র ছড়িয়ে দেয়।

চুলের অন্যতম বড় সমস্যা খুশকি যা মাথার ত্বকে থাকে। খুশকি  চুলের গোড়া নরম করে। ফলে প্লাস্টিকের চিরুণি ব্যবহার করলে চুল পরে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে কাঠের চিরুণি বেশি উপকারী।

 

জট পড়া চুলের জন্য প্লাস্টিক বা চাচের চিরুণি ক্ষতিকর। এ ধরনের চিরুণি ব্যবহারে যে স্থীর তড়িৎ উৎপন্ন হয় তাতে চুল ছিড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ ক্ষেত্রে কাঠের চিরুণি ভালো কাজ করে। চুল পড়া রোধ হয়।

চুলে তেল দেওয়ার পর তেল ত্বকে ছড়িয়ে দিতে ভালো ভূমিকা রাখে কাঠের চিরুণি। ফলে চুল থাকে মোলায়েম। ত্বক থাকে মসৃণ। চুল মোলায়েম থাকলে সহজে ভাঙে না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.