Take a fresh look at your lifestyle.

লেবাননকে রুখে দিল বাংলাদেশ

১২৪

বিশ্বকাপ প্রাক বাছাইয়ে মালদ্বীপের বিপক্ষে খেলতে পারেননি শেখ মোরসালিন। জরিমানা দিয়ে জাতীয় দলে ঢুকেই দেখালেন দলের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ তিনি। বাছাইয়ের গ্রুপ পর্বে দলে ফিরেই নিজের নৈপুণ্য দেখিয়েছেন। পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশ দল হার এড়িয়েছে এই তরুণ ফরোয়ার্ডের অসাধারণ এক গোলে। শেষ পর্যন্ত লেবাননকে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে বাংলাদেশ।

লেবানন ম্যাচ দিয়েই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সাত গোলে হারের যন্ত্রণা ভুলতে চেয়েছিল বাংলাদেশ। লক্ষ্য ছিল পয়েন্ট অর্জন। তিন পয়েন্ট না হলেও অন্তত একটি তো পেয়েছে হাভিয়ের কাবরেরার দল। প্রথমার্ধে সুযোগ পেয়েও বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে পারেনি। বেশ কয়েকটি আক্রমণে লক্ষ্যভেদের সুযোগ ছিল। ব্যর্থ হয়েছে যদিও।

মঙ্গলবার বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় একাদশে চার পরিবর্তন রেখে খেলা শুরু করে স্বাগতিকরা। মোরসালিন, শাকিল, ইসা ও সোহেল রানা শুরুর একাদশে জায়গা করে নেন। তাদের উপস্থিতিতে শুরুর দিকে লেবানন চেপে খেলার চেষ্টা করে। রক্ষণ ঠিকঠাক রেখে প্রতি আক্রমণ-নির্ভর ফুটবল খেলতে সময় নেয়নি বাংলাদেশও। গোলের সুযোগ তৈরি করেছিলেন মোরসালিন-ফাহিমরা। তবে ফিনিশিংয়ের অভাবে কাজের কাজ কিছু হয়নি। এছাড়া লেবাননের ডিফেন্ডাররাও দারুণ ডিফেন্ড করেছেন।

ম্যাচঘড়ির ১০ মিনিটের সময় বাংলাদেশ প্রথম সুযোগ পায়। মোরসালিনের ক্রসে ফাহিম জায়গা মতো পৌঁছতে পারেননি। পারলে হয়তো গোলের সুযোগ ছিল। ২৪ মিনিটে জামালের কর্নারে বিশ্বনাথের হেড গোলকিপারের হাতে জমা পড়ে।

পরের মিনিটে শেখ মোরসালিনের পাসে মোহাম্মদ সোহেল রানা বক্সের ভেতরে বল পেয়ে লক্ষ্যে শট নেওয়ার আগেই ডিফেন্ডার ক্লিয়ার করেছেন। ৩৩ মিনিটে ফাহিমের ক্রসে মোরসালিন ঠিকমতো জায়গায় পৌঁছাতে পারেননি। যদিও অনেকটা ফাঁকায় ছিলেন।
৪৫ মিনিটে বাংলাদেশের আরও একটি প্রচেষ্টা এক ডিফেন্ডার ক্লিয়ার করলে হতাশ হতে হয় স্বাগতিকদের।

বিরতির পর গোলকিপার পজিশনে পরিবর্তন আসে বাংলাদেশের। মিতুলের পরিবর্তে নামেন মেহেদী হাসান শ্রাবণ। বিরতির পর ৫০ মিনিটে ভালো ‍সুযোগটা পায় লেবানন। যদিও লেবানন খেলোয়াড়ের শট বাইরের জাল কাঁপায়।

শেষ পর্যন্ত ৬৮ মিনিটে এগিয়ে যায় লেবানন। বক্সের ভেতরে আক্রমণ থেকে বল চলে আসে ৬ গজের মধ্যে। গোলকিপার শ্রাবণ এগিয়ে এসে সেটি ঠিকমতো তালুবন্দি করতে পারেননি। বল পেয়ে বদলি ফরোয়ার্ড মাজেদ ওসমান কোনাকুনি শটে কাঁপিয়েছেন জাল। ৫ মিনিটের মধ্যে বাংলাদেশ গোল শোধ দিয়ে ম্যাচে ফেরে। ৭৩ মিনিটে লেবাননের এক ফুটবলারের ব্যাক পাস পেয়ে যান শেখ মোরসালিন। ডি-বক্সের বাইরে থেকে এই ফরোয়ার্ড বল পেয়ে বুলেট গতির শটে জাল কাঁপাতে ভুল করেননি। গোল করেই সঙ্গে সঙ্গে গ্যালারিতে উঠে দর্শকদের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন তিনি। তবে নিয়ম ভাঙায় দক্ষিণ কোরিয়ান রেফারি মোরসালিনকে হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন।

৮৯ মিনিটে জয়সূচক গোলও পেতে পারতো বাংলাদেশ। বক্সের ভেতরে বল পেয়ে মোরসালিন শট নিলেও সেটি বাইরের জাল কাঁপিয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.