Take a fresh look at your lifestyle.

বরিশালে সরস্বতী প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত

১৪০

মাঘ মাসের কৃষ্ণ পক্ষের পঞ্চমী তিথিতে আগামী বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠিত হবে হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব বিদ্যার ও নৃত্য কলার দেবী সরস্বতী পূজা।

পূজা উপলক্ষে শীতকে উপেক্ষা করে বিদ্যার দেবী সরস্বতী প্রতিমা তৈরি করেছেন বরিশালের বিভিন্ন স্থানের পাল পাড়ার মৃৎশিল্পীরা।

জ্ঞানের আলো ছড়াতে অনুষ্ঠিত হবে বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা। তাই মৃৎশিল্পীদের পাশাপাশি বাড়িতে নারী শিল্পীদেরও বিশ্রামের সময় নেই। খড়, কাঠ, বাঁশ ও মাটি দিয়ে তৈরি প্রতিমার গায়ে দেওয়া হয়েছে প্রলেপ ও রং। আগেই রোদে শুকিয়ে মাটির অলংকার পরানোর কাজ শেষ করেছেন শিল্পীরা।

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের উত্তর শিহিপাশা পাল পাড়া গ্রামের মৃৎশিল্পী শিবু পাল জানান, সারা বছরই বিভিন্ন দেব-দেবীর প্রতিমা বাড়িতে তৈরি করেন তারা। আবার অর্ডার অনুযায়ী বাড়িতে গিয়েও প্রতিমা তৈরি করে থাকেন তারা। তবে বিভিন্ন মাসে বিভিন্ন পূজা অনুষ্ঠিত হওয়ার কারণে মৌসুম অনুযায়ী তারা প্রতিমা তৈরি করেন। বর্তমানে সরস্বতী প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ করছেন তারা।

আগামী বুধবার সকাল থেকে পঞ্চমী তিথি শুরু হয়ে শেষ হবে রাতে। এ সময়ের মধ্যে প্রতিটি হিন্দু বাড়ি ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে।

শিবু পালের স্ত্রী কল্পনা পাল বলেন, দুই রকমের প্রতিমা তৈরি করেন তারা। ছাঁচে (ডাইস) ও ব্যানায়। ছাঁচে নির্মিত প্রতিমা ৭০ থেকে ২০০ টাকা ও ব্যানায় নির্মিত প্রতিমা ৭০০ থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি করে আসছেন তারা।

একই বাড়ির কানাই পাল ও লিটন পাল জানান, বিক্রির উদ্দেশে অন্তত শতাধিক প্রতিমা তৈরি করেছেন তারা। অনেক প্রতিষ্ঠান তাদের পছন্দ মতো প্রতিমা তৈরির অর্ডার দিয়েছেন। ওই প্রতিমার কাজও শেষ করে তা ডেলিভারি দেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন তারা। পুরুষ শিল্পীদের সঙ্গে নারী শিল্পীরাও কাজ করছেন সমান তালে। আগামী বুধবার বিদ্যার দেবী সরস্বতীর আরাধনায় নতজানু থাকবে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা।

স্থানীয় কাজল দাশ গুপ্ত জানান, প্রতিবছরের মতো জ্ঞানের আলো ছড়াতে আবারও এসেছেন বিদ্যার দেবী সরস্বতী। বিদ্যা ও সংগীতের দেবী সরস্বতীর আরাধনাকে কেন্দ্র করে অনুষ্ঠেয় একটি অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব তিথিটি পঞ্চমী বা বসন্ত পঞ্চমী নামেও পরিচিত। এবার উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা পালন করবে সরস্বতী পূজা।

উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুনিল কুমার বাড়ৈ জানান, আসন্ন সরস্বতী পূজা উপলক্ষে প্রতিবছরের মতো এবারও আগৈলঝাড়া উপজেলায় প্রায় প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আনন্দঘন পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে সরস্বতী পূজা। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছাড়াও সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রায় প্রতিটি ঘরেই অনুষ্ঠিত হবে সরস্বতী পূজা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.