Take a fresh look at your lifestyle.

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ‘ভূমিকম্প অ্যালার্ট’ চালু করবেন যেভাবে

৪০৬

টেক জায়ান্ট গুগলের বিভিন্ন পরিষেবার মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় হলো ‘অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট’ বা ভূমিকম্প অ্যালার্ট ফিচার। অ্যান্ড্রয়েড ফোনে বিনামূল্যে এই ফিচারটি ব্যবহার করা যায়। এটি ব্যবহারকারীদের ভূমিকম্পের আগাম সতর্কবার্তা দেয়।

 

২০২০ সালের আগস্টে যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম এই পরিষেবা চালু করে গুগল। এরপর ২০২১ সালের এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে প্রথম দেশ হিসেবে নিউজিল্যান্ড ও গ্রিসে এই সেবা চালুর ঘোষণা দেওয়া হয়। পরবর্তীতে কাজাখস্তান, কিরগিজ রিপাবলিক, ফিলিপাইন, তাজিকিস্তান, তুরস্ক, তুর্কমেনিস্তান ও উজবেকিস্তানে সেবাটি চালু করা হয়।

মাত্র ৬ দিন আগে অর্থাৎ চলতি বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর ভারতে ‘অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট’ সেবাটি চালু করেছে গুগল। তবে বাংলাদেশে ২০২২ সালের জুলাই থেকে এ সেবা দিয়ে আসছে গুগল। কিন্তু অতি গুরুত্বপূর্ণ এই ফিচারটি সম্পর্কে অনেকেই এখনো জানেন না।

 

ভূকম্পন-সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় শনাক্ত করতে এ সিস্টেমটি অ্যান্ড্রয়েড ফোনের অ্যাকসিলারোমিটারসহ একাধিক সেন্সর ব্যবহার করে ভূমিকম্পের আগাম সতর্কবার্তা দেয় ব্যবহারকারীদের।

ফিচারটি ফোনে চালু থাকলে ভূমিকম্পের অ্যালার্ট নোটিফিকেশন পেয়ে বাড়ির আসবাবপত্র-সহ অন্যান্য জরুরি জিনিস অন্যত্র সরিয়ে নিরাপদে থাকতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

 

ভূমিকম্পের ভয়াবহতা ও তীব্রতার ওপর নির্ভর করে মোবাইল ডিভাইসে ‘অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট’ সিস্টেম দুটি ভিন্ন ধরনের সতর্কতা বার্তা প্রদর্শন করে-

* বি অ্যাওয়ার: ৪.৫ মাত্রার ভয়াবহ ভূমিকম্প বা মডিফাইড মার্সিলি ইনটেনসিটি (এমএমআই) স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ৩ কিংবা ৪ হলে ‘বি অ্যাওয়ার’ ফিচারটি ব্যবহারকারীদের সতর্ক করবে। এ ধরনের পরিস্থিতিতে, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থলের দূরত্ব সহ ব্যবহারকারীর কাছে নোটিফিকেশন পাঠানো হয়।

* টেক অ্যাকশন: ৪.৫ মাত্রারও বেশি ভয়াবহ ভূমিকম্প কিংবা মডিফাইড মার্সিলি ইনটেনসিটি (এমএমআই) স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা পাঁচ এর বেশি হলে ‘টেক অ্যাকশন’ ফিচারটি ভূমিকম্পের ফুল-স্ক্রিন সতর্কবার্তা প্রদান করবে। সম্ভাব্য ভয়াবহ ঝাঁকুনিতে মানুষকে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণে সহায়তা করতে ডিভাইসে ফুল-স্ক্রিন নির্দেশনা ভেসে উঠবে এবং ফোনটি উচমাত্রার সংকেত প্রদান করবে।

 

ভূমিকম্প অ্যালার্ট ফিচারটি যেভাবে ব্যবহার করবেন

* বাংলাদেশের প্রত্যেক অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর জন্য ‘অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট’ ফিচারটি ২০২২ সালে চালু করেছে গুগল। অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন ৫ ও তার পরবর্তী সংস্করণগুলোতে কাজ করবে এই সিস্টেমটি।

 

* এই অ্যালার্ট পেতে গেলে ওয়াই-ফাই বা মোবাইল ডেটা কানেক্টিভিটি অবশ্যই অন রাখতে হবে। এছাড়াও ফোনের লোকেশন ও অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট অন করে রাখতে হবে।

ভূমিকম্পের অ্যালার্ট ফিচারটি যেভাবে চালু করবেন

 

* প্রথমে ফোনের সেটিংস অ্যাপটি খুলুন।

* এরপর ‘লোকেশন’ অপশনে যান।

* ‘অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট’-এর পাশেই যে টগলটি রয়েছে, তাতে ট্যাপ করুন।

* প্রম্পট এলে সিস্টেমটিকে আপনার লোকেশনের অ্যাকসেস নেওয়ার অনুমতি দিন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.